ঢাকাশনিবার , ১২ আগস্ট ২০২৩
  1. 1
  2. avi feb
  3. Belugabahis bahis sitesi feb
  4. blackjack-deluxe
  5. bonan feb
  6. casinomhub giris
  7. goo feb
  8. last-news
  9. mars feb
  10. Marsbahisgiris feb
  11. New Post
  12. News
  13. onwin feb
  14. polskie-kasyna
  15. আইন-আদালত

একই ক্লাসে দুই জোড়া জমজ ভাই-বোন

কে এম তারেক অপু
আগস্ট ১২, ২০২৩ ৬:১৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সমাচার প্রতিবেদক ॥ জমজ দুই ভাই তামিম হাওলাদার ও তাহমিদ হাওলাদারের বাড়ি বাবুগঞ্জ উপজেলার লাকুটিয়া গ্রামে। কিন্তু বাবার চাকরির সুবাদে দেশের বিভিন্ন জেলায় কেটেছে তাদের শৈশব। এ ছাড়া জমজ দুই বোন স্বর্ণা হালদার ও বর্ণা হালদারের বাড়ি মেহেন্দীগঞ্জ পৌর শহরের চরহোগলায়। নদীবেষ্টিত জনপদ মেহেন্দীগঞ্জেই তারা বেড়ে উঠেছেন। এমনকি উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত সেখানেই পড়াশোনা করেছেন। স্বর্ণা ও বর্ণার বাবা শ্যামল হালদার পেশায় একজন ওষুধ বিক্রেতা। এ ছাড়া তামিম ও তাহমিদের বাবা একটি ওষুধ প্রস্তুতকারী কোম্পানিতে কর্মরত। দুই পরিবারের তারা চারজন শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজে ভর্তি হওয়ার পর গত ১ আগস্ট ৫৪ তম ব্যাচের ক্লাস শুরু হয়। ক্লাস শুরুর দিন থেকেই সহপাঠীদের নজর কেড়েছে দুই জোড়া জমজ ভাই-বোন। এরপর সময় যতো গড়িয়েছে তাদের নিয়ে সহপাঠীসহ ক্যাম্পাসে সকলের কৌতুহল। হঠাৎ দেখলে দুই ভাই এবং দুই বোনকে আলাদা করা বেশ কঠিন। হুবহু মিল তাদের চলন-বলন ও চেহারায়। এ কারণে এখন পর্যন্ত কলেজের কেউ তাদের আলাদা করে নাম ধরে ডাকতে পারছে না। দুই ভাইয়ের একজনকে দেখলে ডাক দেওয়া হচ্ছে তামিম-তাহমিদ বলে। একইভাবে জমজ বোনদের একজনকে দেখলে ডাকা হচ্ছে স্বর্ণা-বর্ণা বলে। তবে এ বিষয়টি বেশ উপভোগ করছেন শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা। গত পহেলা আগস্ট ক্লাস শুরুর পর থেকেই দুই জোড়া নতুন মুখ খুব পরিচিত হয়ে উঠেছে ক্যাম্পাসে। ক্লাস শেষ হওয়ার পর গল্প করা, লাইব্রেরী থেকে শুরু করে ক্যান্টিনে যাওয়া সবখানেই তাদের দেখা মিলছে একসঙ্গে। তাদের যারাই দেখছে তারাই ডেকে নিয়ে কথা বলছে। জানতে চাচ্ছে দুই ভাই ও দুই বোনের বেড়ে ওঠার গল্প। একইসাথে একই মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পাবার গল্প ও ভবিষ্যত পরিকল্পনার কথা। তারাও হাসি মুখে সব প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছে। আগ্রহ নিয়ে গল্পে মেতে থাকে সহপাঠী ও সিনিয়র শিক্ষার্থীরা। প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও কলেজে একইসঙ্গে লেখাপড়া করে বেড়ে ওঠা এই দুইজোড়া জমজ ভাই ও বোনের নেই বাইরের কোন বন্ধু। তামিমের বন্ধু তাহমিদ এবং বর্ণার বন্ধু স্বর্ণা। পড়াশোনায়ও তারা একে অপরকে সহযোগিতা করছেন। কোন প্রতিযোগিতা নয়; বরং সহযোগিতাকে সম্বল করে বেড়ে উঠেছে দুই পরিবারের দুই জোড়া জমজ। নিজেদের মধ্যে সবকিছু ভাগাভাগি করতে করতে তারা এসেছে কাংখিত সাফল্যের দোরগোড়ায়। তারা মানবিক চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। জমজ দুই বোন স্বর্ণা-বর্ণা বলেন, মেহেন্দীগঞ্জে চিকিৎসকের সংকট বেশ প্রকট। বাবা ওষুধ ব্যবসার সাথে জড়িত থাকায় ছোটবেলা থেকে বিষয়টি সম্পর্কে আমাদের ধারনা ছিল। তাই স্কুলজীবন থেকে আমরা চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন দেখতে শুরু করি। যজম তামিম ও তাহমিদ বলেন, আমরা দুই ভাই একে অপরের খুব ভালো বন্ধু। একই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একই শ্রেণিতে জমজ ভাই ও বোনের পড়াশোনা করা নতুন কোনো ঘটনা নয়। কিন্তু দুই ভিন্ন পরিবারের দুই জোড়া জমজ ভাই-বোন একই শিক্ষাবর্ষে ভর্তি হওয়ার এমন ঘটনা সচরাচর দেখা যায় না। এমন বিরল ঘটনাই এবার দেখা গেল বরিশাল শের-ই বাংলা বাংলা মেডিকেল কলেজে। কলেজের ইতিহাসে এটি একটি অভূতপূর্ণ ঘটনা বলে মন্তব্য করে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজের বায়োকেমেষ্ট্রি বিভাগের প্রভাষক ডা. রাশেদুজ্জামান বলেন, ১৯৬৮ সালে প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানটিতে এই প্রথম একসঙ্গে একই শিক্ষাবর্ষে দুই জোড়া জমজ ভাই-বোন ভর্তি হয়েছে। এর আগে ৪৪ তম ব্যাচে জমজ দুই বোন শিক্ষার্থী ছিলেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।