ঢাকাসোমবার , ৩১ জুলাই ২০২৩
  1. 1
  2. avi feb
  3. Belugabahis bahis sitesi feb
  4. blackjack-deluxe
  5. bonan feb
  6. casinomhub giris
  7. goo feb
  8. last-news
  9. mars feb
  10. Marsbahisgiris feb
  11. New Post
  12. News
  13. onwin feb
  14. polskie-kasyna
  15. আইন-আদালত

সরকারি – বেসরকারি অফিসেই বেশি মশা: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

Junaed khondokar
জুলাই ৩১, ২০২৩ ৩:৪১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

 

বাসাবাড়ি ও আবাসিক ভবনগুলোর চেয়ে সরকারি, বেসরকারি অফিস ও ব্যাংকগুলোতে মশা বেশি বলে স্বীকার করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

 

 

তিনি সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তাদের বলেছেন, ‘আপনারা যে অভিযোগ করছেন নির্মাণাধীন ও সরকারি-বেসরকারি অফিসে মশা বেশি—এটা সত্য। এমনকি ব্যাংকগুলোতেও মশা বেশি। প্রচার-প্রচারণার কারণে আবাসিক ভবনগুলোর মানুষের মধ্যে সচেতনতা বেড়েছে। যে কারণে এখানে মশা কম। কিন্তু যেগুলোতে মশা বেশি সেগুলোতে আমাদের পরিবর্তন আনতে হবে। ডেঙ্গু শুধু বাংলাদেশের জন্য নয়, গোটা বিশ্বের জন্যও চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হবে। বিভিন্ন দেশের সঙ্গে আমি লিংক আপ করে ধারণা নিয়ে মোকাবিলা করার চেষ্টা করছি।’

 

 

আজ রোববার নগরভবনে ডেঙ্গু প্রতিরোধ ও এডিস মশা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম বিষয়ে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় কাউন্সিলরসহ ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তাদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এ কথা বলেন মন্ত্রী।

 

মন্ত্রী জানান, ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে একটি ল্যাবরেটরি করবে সরকার। তিনি বলেন, ‘২০১৯ সালে ১৫২টি দেশে ডেঙ্গু ছড়িয়েছে। এবার আরও ছড়াবে বলে বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা প্রকাশ করছেন। এ জন্য আমাদের ডেঙ্গু মোকাবিলায় জোরালো কার্যক্রম নিতে হবে। ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের আরও বেশি মানুষের কাছে যেতে হবে। বাচ্চারা মারা যাচ্ছে, পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি মারা যাচ্ছে। এটা দুঃখজনক, কষ্টদায়ক। আমরা যদি সচেতন হই, দায়িত্ববান হই—তাহলে এর থেকে রক্ষা পেতে পারি। ওয়াসার মিটারে পানি জমার ব্যাপারে চিঠি দেব। কিন্তু তাদেরও ম্যানপাওয়ার কম, তাই বিকল্প কোনো ওয়ে আছে কি না—থাকলে সেটা আমাকে জানাবেন।’

 

এর আগে ডিএসসিসির ২৬ নম্বর ওয়া‌র্ডের কাউন্সিলর মো. হা‌সিবুর রহমান ব‌লেন, ‘আমার এল‌াকায় ঘ‌রের ভেত‌রে ও গ‌্যা‌রে‌জে, সরকা‌রির কোয়ার্টা‌রের ভেত‌রে, বেজ‌মে‌ন্টে লার্ভা পাওয়া যা‌চ্ছে। একটা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠা‌নের বাগানের ১৭০‌টির‌ বে‌শি বা‌ঁশের ফা‌ঁকে লার্ভা পে‌য়ে‌ছি।’

 

৫ নম্বর ওয়া‌র্ডের চিত্তরঞ্জন দাস ব‌লেন, ‘আয়া-বুয়া‌দের নি‌য়ে বৈঠক ক‌রে‌ছি। আমার এলাকায় এক‌টি জায়গায় প‌রিত‌্যক্ত ১০০ গা‌ড়ি র‌য়ে‌ছে, এসব প‌রিত‌্যক্ত গা‌ড়িতে লার্ভা আছে। এই গা‌ড়িগু‌লো সরা‌নোর জন‌্য মেয়‌রের কা‌ছে আহ্বান জানা‌চ্ছি।’

 

২৫ নম্বর ওয়ার্ড মো. আনোয়ার ইকাবাল ব‌লেন, ‘আমার এলাকায় ১০তলা নির্মাণাধীন ভব‌নের বেজ‌মে‌ন্টে হাঁটুসমান পা‌নি। মা‌লিক‌কে বল‌লেও পা‌নি প‌রিষ্কার কর‌ছে না। ব‌্যাপা‌রে ব‌্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানা‌চ্ছি।’

 

৩১ নম্বর ওয়া‌র্ডের কাউন্সিলর মো. আলমগীর ব‌লেন, ‘আমার এলাকায় ওষুধ ও জনবল বাড়া‌নো দরকার। এটি বাড়া‌নোর জন‌্য মেয়‌রের কা‌ছে অনু‌রোধ কর‌ছি।’

 

এ সময় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, ‘আমরা সকাল-বিকাল কার্যক্রম পরিচালনা করছি। গত এক সপ্তাহে ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে রোগী কমে আসছে। আমরা ওষুধ ছিটাই না। এমন ঢালাও অভিযোগ সত্য নয়।’

 

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মুহাম্মদ ইব্রাহিমসহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এবং সিটি করপোরেশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।