ঢাকাসোমবার , ২৭ নভেম্বর ২০২৩
  1. 1
  2. avi feb
  3. Belugabahis bahis sitesi feb
  4. blackjack-deluxe
  5. bonan feb
  6. casinomhub giris
  7. goo feb
  8. last-news
  9. mars feb
  10. Marsbahisgiris feb
  11. New Post
  12. News
  13. onwin feb
  14. polskie-kasyna
  15. আইন-আদালত

মেহেন্দিগঞ্জে প্রাথমিক শিক্ষক প্রশিক্ষণে অনিয়মের অভিযোগ

কে এম তারেক অপু
নভেম্বর ২৭, ২০২৩ ৫:৪৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সমাচার প্রতিবেদক,মেহেন্দিগঞ্জঃ মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা রিসোর্স সেন্টার কর্তৃক প্রাথমিক শিক্ষক প্রশিক্ষণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। মেহেন্দিগঞ্জে ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরে শিক্ষকগণের জন্য শিক্ষাক্রম বিস্তরন প্রশিক্ষণ চলতেছে। এতে প্রায় ৩৫ লক্ষ টাকা বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে। এর মধ্য থেকে নাস্তা যাতায়াত ও তিন দিনের প্রশিক্ষণ ভাতা বাবদ জনপ্রতি ৩০৯০ টাকা করে দিলেও প্রশিক্ষণার্থীদের জন্য ইউআরসি কর্তৃক সরবরাহকৃত বিভিন্ন উপকরন – যেমন, বই,কলম,খাতা,রাবার,কার্টার, ব্যাগ সবই নিম্নমানের বলে একাধিক প্রশিক্ষণার্থী সংবাদ মাধ্যমকে জানান। উপজেলা রিসোর্স সেন্টারে সরেজমিনে গিয়ে তার সত্যতা পাওয়া যায়। প্রশিক্ষণ উপকরন বাবদ বরাদ্ধ ৫০০ টাকা থাকলেও সরবরাহ করা হয়েছে ৫টাকার ১টি কলম,১০ টাকার ১টি খাতা, ৭টাকার ১টি কার্টার। আর ব্যাগ বাবদ জনপ্রতি ৫০০ টাকা বরাদ্ধ থাকলেও সেখানে মাত্র ১৮০ টাকা থেকে ২০০ টাকা দামের খুবই নিম্নমানের ব্যাগ সরবরাহ করা হয়েছে। সর্বমোট ১০০০ টাকা বরাদ্ধ অথচ মাত্র ২০০ থেকে ২২০ টাকার মালামাল দিয়ে বাকী টাকা দায়িত্বে থাকা ইন্সট্রাক্টর বিপুল চন্দ্র মজুমদার আত্মসাৎ করবেন বলে জানান, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক প্রশিক্ষণার্থী। প্রতি ব্যাচ ৩০ জন করে ৩০ ব্যাচে সর্বমোট ৯০০ শিক্ষক প্রশিক্ষণ নিবেন। এতে করে প্রায় ৭ থেকে ৮ লক্ষ টাকা শুধুমাত্র কাগজে কলমে ভাউচার দেখিয়ে নিজ পকেটস্থ করার সব আয়োজন সম্পূর্ন করে রেখেছেন তিনি।এর সত্যতা পাওয়া যায়, ৮ম ব্যাচের জন্য বরিশাল ৩৭ নং চকবাজারের তাবিয়া প্লাস থেকে ক্রয় করা ৩০টি ব্যাগ বাবদ ১৫ হাজার টাকার ভাউচার করা হয়েছে। এছাড়াও শিক্ষক ডেপুটেশসনের নামে আছে অবৈধ লেনদেন। নিয়ম অনুযায়ী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস তাদের অধীনস্থ শিক্ষকদের ধাপে ধাপে প্রশিক্ষণের জন্য পাঠাবেন কিন্তু উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের দায়িত্বে থাকা ইন্সট্রাক্টর বিপুল চন্দ্র মজুমদার নিজ ইচ্ছা মাফিক শিক্ষকদের ডেপুটেশসন দিয়ে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে থাকেন। যেটা সম্পূর্ন বে-আইনি বলে জানান,মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা। এ ব্যাপারে মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের দায়িত্বে থাকা ইনেস্টক্টর বিপুল চন্দ্র মজুমদার জানান, জেলা ভিত্তিক সংগঠনের মাধ্যমে একত্রে মালামাল ক্রয় করা হয় বিধায় কিছু টাকা থেকে যায়। প্রশিক্ষণার্থীদের দাবী, তাদেরকে ঠকিয়ে সরকারি বরাদ্ধ এভাবে নয় ছয় করার সাথে জড়িতদের তদন্তের মাধ্যমে শাস্তির আওতায় আনা হোক।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।