ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  1. 1
  2. avi feb
  3. Belugabahis bahis sitesi feb
  4. blackjack-deluxe
  5. bonan feb
  6. casinomhub giris
  7. goo feb
  8. last-news
  9. mars feb
  10. Marsbahisgiris feb
  11. New Post
  12. News
  13. polskie-kasyna
  14. আইন-আদালত
  15. আন্তর্জাতিক

বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণা করেন মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ

কে এম তারেক অপু
সেপ্টেম্বর ৭, ২০২৩ ৬:১৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সমাচার প্রতিবেদক ॥ বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরের ৪৪২ কোটি ৭ লাখ ৭১ হাজার ৩৮৭ কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণা করেছেন মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে নগরীর বরিশাল ক্লাব মিলনায়তনে এই বাজেট ঘোষণা করেন তিনি। একই সঙ্গে ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে ৪১৮ কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেটের বিপরীতে ১৭১ কোটি ৯৪ লাখ ৩৩ হাজার ২৮১ টাকার সংশোধিত বাজেট উপস্থাপন করেন মেয়র।ঘোষিত বাজেটে নগর উন্নয়ন খাতে সর্বোচ্চ ১১৯ কোটি ১৭ লাখ ৪৯ হাজার টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। যা মোট বাজেট বরাদ্দের ২৭.৪৭ ভাগ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বরাদ্দ পরিবেশ উন্নয়ন ও সৌন্দর্য বর্ধন খাতে ৯৭ কোটি ৩৯ লাখ ৩৯ হাজার ৮৮৩ টাকা এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ সম্মানী ও বেতন ভাতা খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ৫৩ কোটি ১৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা।প্রস্তাবিত বাজেটে নিজস্ব উৎস থেকে আয় দেখানো হয়েছে ৬৭ কোটি ২ লাখ টাকা। সরকারি থোক ও বিশেষ থোক বাবদ আয় দেখানো হয়েছে ৩৬ কোটি ৫০ লাখ টাকা।এছাড়া সরকারি ও বৈদেশিক সাহায্যপুষ্ট প্রকল্পে ২৪৬ কোটি ৪ লাখ ৭৬ হাজার ৭৯৬ টাকা ব্যয়ের প্রস্তাব রাখা হয়েছে।প্রস্তাবিত বাজেট বইয়ে মেয়রের ৫ বছরের উন্নয়নের ফিরিস্তি তুলে ধরা হয়। এটি বর্তমান পরিষদের শেষ বাজেট।বর্তমান মেয়রের পঞ্চম ও বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ২১তম বাজেট।বাজেট বক্তৃতায় মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ বলেন, বাংলাদেশ মানেই মুজিব, মুজিব মানেই বাংলাদেশ।জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানই আমাদের পরিচয়। বঙ্গবন্ধুর নীতি আদর্শকে ধারণ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য একটি পরিকল্পিত সবুজ পরিচ্ছন্ন ও স্মার্ট নগরী গড়ার জন্য নগরীর জন্য বিগত ৫ বছর আপনাদের সেবক হয়ে দিন রাত কাজ করেছি। যদিও ২ বছর করোনায় অতিবাহিত হওয়ার কারণে আমার মেয়াদের কাজ করার যথেষ্ট সময় পায় নাই। তবুও নগরবাসীর জন্য আমি সর্বোচ্চ চেষ্ঠা করেছি। নিজস্ব অর্থায়নে দৃশ্যমান উন্নয়ন না হলেও আমার চেষ্ঠার কোন কমতি ছিলোনা। মন্ত্রনালয়ে দাখিলকৃত প্রকল্পগুলো অনুমোদিত হলে কাঙ্খিত উন্নয়ন করা সম্ভব হতো। তদুপরি প্রকল্প ব্যতিরেকেও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী বরিশাল সিটি কর্পোরেশনকে একটি স্বনির্ভর সুশৃঙ্খল ও দুনীর্তিমুক্ত প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলে এযাবত কালে সর্বোচ্চ রাজস্ব আয় অর্জন করে বিসিসিকে পরিচালনা করতে সক্ষম হয়েছি। এক্ষেত্রে মেয়র হিসেবে সফলতা বা ব্যর্থতার হিসেব নিকেশের দায়িত্ব আমি নগরবাসীর উপরই অর্পণ করলাম। মহান আল।রঅহর কাছে প্রার্থনা করি আজকের এই বাজেট যেন জনগনের কল্যাণে সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়ন হয়। মেয়র বলেন, আমি জনগনের দায়িত্ব পালনের সময় যদি কেউ কষ্ট পেয়ে থাকেন অনাকাঙ্খিত কষ্টের জন্য ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখার অনুরোধ করছি। বাজেট বক্তৃতা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মেয়র বলেন, সব খাল দখলমুক্ত করে খনন ও সৌন্দর্য বর্ধন, রাস্তাঘাটের উন্নয়নসহ নগরীর সার্বিক উন্নয়নে বেশ কয়েকটি বড় প্রকল্প মন্ত্রণালয়ে জমা দেয়া ছিলো। সরকার প্রকল্প অনুমোদন না দেয়ায় এই উন্নয়ন করা সম্ভব হয়নি। তবে সাধ্যের সবটুকু দিয়ে বর্জ্য বস্থাপনাসহ, সিটি কর্পোরেশনের সব সম্পদের তালিকা করা এবং সব কাজে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা আনার চেষ্টা করেছি। সাফল্য ব্যর্থতার মূল্যায়ন করবে জনগণ। সিটি কর্পোরেশনে বেসরকারি অডিট কার্যক্রম আগামীতে চালু রাখতে গণমাধ্যমের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।বাজেট ঘোষনা অনুষ্ঠানে বিসিসির সচিব মাছুমা খাতুন, প্যানেল মেয়র-১ গাজী নাঈমুল হোসেন লিটু ও প্যানেল মেয়র-২ রফিকুল ইসলাম খোকন, মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান একেএম জাহাঙ্গীর এবং জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মো. ইউনুস, গণমাধ্যম কর্মী, নগরীর গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, জনপ্রতিনিধিসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।